Main menu

নাইন। এরিক জারোসিনস্কি। (১)

অনুবাদকের কথা

জার্মানি আর জার্মান ভাষা নিয়ে লেখা এফোরিজম বা জারোসিনস্কির নিজের মতে কৌতুকগুলা মূলত তার জীবনের খুব খারাপ একটা সময়ের বাই- প্রডাক্ট। কে এম রাকিব প্রথম আমাকে বইটা পড়তে দেন। প্রচলিত বা ভূতপূর্ব বা অভূতপূর্ব পরিবার সমাজ রাষ্ট্র বিশ্ব ব্যবস্থার উপর আমার অরুচির  তৎকালীন বা চিরন্তন যে  সুরতহাল সেটাই হয়তো তাকে এই কাজের কাজী করেছিলো। ট্যুইটার এ বিভিন্ন সময়ে দর্শন, শিল্প সাহিত্য, রাজনীতি, অর্থনীতি ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে করা জারোসিনস্কির ট্যুইট যে এমন সাড়া ফেলে দিবে তা তার নিজেরও ধারণা ছিল না।[pullquote][AWD_comments][/pullquote]

নাইন কোয়ার্টার্লি শিরোনামে করা এই উইটি পানি ট্যুইটগুলা ইতিমধ্যেই বিশ্বের ১২৫টি দেশের প্রায় ১ লাখ মানুষের কাছে রিচ করতে পারছে। হালের বিখ্যাত দার্শনিক স্লাভয় জিজেক নাইন সম্বন্ধে বলছেন যে, “ট্যুইটার আমি পছন্দ করি না। আমি মনে করি যে এটা নিষিদ্ধ করা উচিত। কিন্তু জারোসিনস্কির নাইন হচ্ছে অন্য জিনিস, মূলত এই একটা জিনিসই ট্যুইটাররে জাস্টিফাই করে! তারে মনে হয় সাইকো সিনেমার র‍্যাডিক্যাল নরম্যান বেটস এর মতো শুধু ছুরির বদলে ট্যুইট দিয়া দ্রুত কাটাকুটি চালায়া যাইতেছেন!”

নিউ ইয়র্কে থাকেন এরিক জারোসিনস্কি, নিজেরে পরিচয় দেন ব্যর্থ দার্শনিক হিসাবে। আধুনিক জার্মান সাহিত্য, সংস্কৃতি ও ক্রিটিক্যাল থিওরির প্রফেসরের দায়িত্ব ছেড়ে তিনি এখন এফোরিস্ট হয়ে উঠতে চাইতেছেন।

নাইনঃ আ মেনিফেস্টো মূলত ট্যুইটারে নাইন কোয়ার্টার্লি শিরোনামে পোস্টানো ওই জিনিসগুলারই একটা ভার্সন। মলাটের চশমাওলা মুখটা যার তিনি হইতেছেন থিওডর এডর্নো যারে নিয়া আমেরিকার নামীদামি সব বিশ্ববিদ্যালয়ে  একটা চাকরি জোটাতে থিসিস পেপার খাড়া করতে চাইছিলেন জারোসিনস্কি। আর সেই একঘেঁয়ে যান্ত্রিক কাজকাম থিকা দুই দণ্ডের এসকেপ ছিলো সেই ট্যুইটগুলা।

দ্য নিউ ইয়র্কার, দ্য প্যারিস রিভিউ, ফ্র‍্যাংফুর্টার, ডার স্পিজেল, দ্য বিলিভার, দ্য ক্রনিকল অফ হায়ার এডুকেশন, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, স্লেট ইত্যাদি হেভিওয়েট গণমাধ্যমে ছাপা হওয়া ও বিখ্যাত জারোসিনস্কির এই অসামান্য আকর্ষণীয় আর আগ্রহোদ্দীপক কাজগুলি বাংলা করতে গিয়া জার্মান কিছু শব্দ ছাড়া তেমন বিপাকে পড়তে হয় নাই আমার।

আর এর টেস্ট নিতে গিয়া আপনাদের ঠিক একই অভিজ্ঞতা হবে বলেই আমার ধারণা। হাজার হোক, শীতকাল, খেজুরের রসে নিপাহ ভাইরাসের সম্ভাবনা তাই তা পান করা থেকে বিরত থাইকা আসেন নাইন পান করি। কোন এক সকালে গ্রেগর সামসার আচমকা কীটে রূপান্তর হওয়া সত্ত্বেও প্রথমেই কাজে না যাইতে পারার আশংকা বা দুঃশ্চিন্তাকে যিনি বলছেন ডার্ক কৌতুক সেই ব্যক্তির নিজের কৌতুক আমাদের সবার একবার হলেও চেখে দেখা উচিত বলেই মনে করি আমি।

তানভীর হোসেন

 

 …………………………………………………………………………………………..

 

ভূমিকা

না বলাটা কোন ব্যাপার না। যুইতমতো বলাটাই হইলো ব্যাপার। মোক্ষম সময়ে। মোক্ষম জায়গায়।আর এইটা বইলা যাইতে পারাটা আরও কঠিন ব্যাপার বিশেষত যেখানে আমরা একটা হ-এ ভরা জগতে বাস করি। পুরাই হ-এ’র দৌরাত্ম। ফ্যামিলিরে হ। ফ্রেন্ডরে হ। যাবতীয় শর্তটর্তরে হ। কাজকামরে হ।খেলাধুলারে হ।। হ-এ ভরা জীবনটারেও হ, হ্যাঁ এবং শুধুই হ রে দয়াল। তবে আরেকটা জীবন আছে। অনিশ্চিত একটা জীবন। সে না’র জন্য গান গায়, না’রে নিয়া গান গায়, তারে গান নিবেদন করে। এটা আবার কোন আলতুফালতু “না” না বরং বর্তমান, ভবিষ্যত, অতীত সবসময়ের জন্যই “না”।

এইটা হইলো “নাইন(Nein)” এর “না”।

 

 

. নাইন নানা। নাইন “হ্যাঁ” না। নাইন হইলো নাইন

 

#ব্যাপারটা সাদাসিধা রাখেন

বর্তমানে জগতের সমস্যা হইলো দুইটা।

১. জগত নিজেই,

আর ২. বর্তমান।

অবশ্য তিনটাও হতে পারে যদি ভবিষ্যৎ গোনায় ধরেন।

 

#পাদটীকা

কোনদিন আমরা টার্মস পড়বো।

কন্ডিশনগুলা পড়বো।

আর অবাক হয়া ভাববো কেন আমরা এইগুলায় রাজী হইছিলাম।

আর হ’র বাক্সে টিক দিছিলাম।

 

 #সত্যের ঘাড়তেড়ামি

ভালো খবর।

আমাদের হারায়া ফেলা আশার খোঁজ পাওয়া গেছে।

খারাপ খবর।

সে আর ফিরতে চায় না।


#
সোশ্যাল মিডিয়া থিওরি

আনন্দ।

অনলাইনে পাওয়া।

প্রায় সব শূন্যতাই মুইছা দেয়।

যেইগুলা অনলাইনে পয়দা হইছিলো।

 

#ঘূর্ণি নিয়ন্ত্রণ

হ এর  জগত।

সত্যিই তোমার উপর বিরক্তি ধইরা গেছে।

আর বদলানেরও দরকার নাই।

 

#সিস্টেমে ঘাপলা

আমার খোদাঃ মরা।

আমার ডক্যুমেন্টঃ সেইভড।

আমার গদ্যঃ একঘেঁয়ে।

আমার স্ক্রিনঃ রিফ্রেশড।

 

#স্বাগতবিটেশন (Bitter Schon)

এটা ডিপ্রেশন না।

এটা দুঃশ্চিন্তা।

কোন এক সকালে ঘুম ভাঙ্গার।

আর নিজেরে একলা আবিষ্কার করার।

যখন ভয় পাওয়ার মতো আর কিছু বাকি নাই।

 

#সোনালি অনুপাত

আমার আশাঃ অর্ধেক শেষ।

আমার কাব্যঃ অর্ধেক পাওয়া।

আমার গেলাসঃ অর্ধেক ফাঁকা।

আমার কবরঃ অর্ধেক ভরা।

 

. নাইন মারমার কাটকাট ভাবেই সব অবিশ্বাস করে

 

#অর্জনবিসর্জন

বিসর্জনঃ পাইপ।

অর্জনঃ আর্ট।

বিসর্জনঃ অক্ষর।

অর্জনঃ কবিতা।

বিসর্জনঃ ধর্ম।

অর্জনঃ বিশ্বাস।

বিসর্জনঃ মানে।

অর্জনঃ দর্শন।

 

#ইউটোপিয়ান নেগেশন

নিরাশা।

আরও ভালো একটা জগতের সন্ধানে লাইগা থাকা।

আর আশা।

যে এর খোঁজ পাওয়া অসম্ভব।

 

#নিহিলিস্ট

নিটশে পড়ো।

দেখো খোদার মরণ।

আবার নিটশে পড়ো।

দেখো মরা থিকা কিছুই পয়দা হয় না আর।

 

#খোদা

লোকে কয়, উনি বাঁইচা ছিলেন।

যেমন তিনি মইরাও গেছেন।

ঠিক অন্য যে কোন দর্শনের মতো।

যা আরেকজন দার্শনিক মাইরা ফেলছেন।

 

 

#এফএকিউ (FAQ)

অন্টোলজিঃ কী বাল?

ক্যাজুয়ালটিঃ কেন বাল?

জ্ঞান্ততত্ত্বঃ কিভাবে রে বাল?

ফেনোমেনোলজিঃ বাল।

 

#খোলাসা করা দর্শন

১. ভাব।

২. ভাবো।

৩. দর্শনে মেজর।

৪. নিজেরে জিজ্ঞাসা কর কী ভাবতেছিলা।

 

#নাই মামার বিনিময়ে কানা মামা

মতবিজ্ঞান সমালোচকঃ

সবকিছুই বানোয়াট।

মাতবর মতবিজ্ঞান সমালোচকঃ

সুতরাং ওইসব বালছাল।

 

#সত্য নাইলে আস্পর্ধা

আর্টঃ মিথ্যা যা সত্য বলে।

আর্টের ইতিহাসঃ মিথ্যা সম্পর্কে সত্য কথা।

এস্থেটিকসঃ মিথ্যার সত্য।

দর্শনঃ সত্য।

 

#উচ্ছিষ্ট

ইয়াংয়ের লাইগা একটু বেশি ফ্রয়েডীয়।

হেগেলের লাইগা একটু বেশিই হেগেলীয়।

জিজেকের লাইগা একটু বেশিই পুরান।

ফ্রাংকফুর্ট স্কুলের লাইগা একটু বেশিই জোশ।

 

#পাঠ তালিকা

বসন্তেঃ প্রাউস্ত। প্যারিসে।

গ্রীষ্মেঃ কেরুয়াক। রাস্তায়।

শরতেঃ সোনট্যাগ। নিউইয়র্কে।

শীতেঃ দস্তয়েভস্কি। ঠাণ্ডা বাতাসে পাতলা কোটে।

 

 

. নাইন প্রশ্নের ধার ধারে না

 

 #টার্মসের ডেফিনেশন

হ, এইটা সত্য যে ফারাক আছে।

নেগেশন আর নিহিলিজমের মধ্যে।

কিন্তু ১. সেইটা ভুয়া।

আর ২. থাকলেও কিচ্ছু যায় আসে না।

 

#কাম কাজের আঁদি সাঁদি

নাকচ করার কবিতা।

অথবা কবিতার নাকচ করা।

 

#খুব খেয়ালী লেখা পড়া

ধর্মশাস্ত্রের সর্বশ্রেষ্ঠ পাঠ হইলো মার্কস।

সাহিত্যের ফ্রয়েড।

অর্থনীতি হইলে উলফ।

আর নিটশের ক্ষেত্রে নিটশে।

 

#কাণ্ডজ্ঞান আত্মজ্ঞান

আদর্শবাদ নিয়ে সবসময় যা জানতে চাইছেনঃ

অথচ জিগাইতে ভয় পাইছেন।

 

এপিস্টেমোলজি সবসময় জানতে চাইছেনঃ

অথচ পারেন নাই।

 

 

#পরখ ও পর্যুদস্ত হওয়া

শরতেঃ কাফকা পড়া।

শীতেঃ পাঠোদ্ধার।

বসন্তেঃ কাফকা প্রেম।

গ্রীষ্মেঃ সমুদ্রতটে বিসর্জন।

 

#দাম হাঁকান

কর্তৃপক্ষের দিকে আঙ্গুল তোলা।

নিজেই একটা কর্তৃপক্ষ বনে যাওয়া।

নিজের দিকে আঙ্গুল তোলা।

নিজেদের কর্তৃপক্ষকে জিগানো যে আঙ্গুল তোলাটা ঠিক হইতেছে কিনা।

 

#বস্তুবাদের নীতিশাস্ত্র

স্ববিরোধিতাগুলি

শিইখা নিতে হয়।

শেখার বিষয়গুলি

সাধারণত কষা/ নীরস।

 

#সব নিশ্চুপ

নীরব একটা মুহূর্ত।

গুরুত্ব দিয়া খেয়াল করা।

অকল্পনীয় কিছুর লাইগা।

অবর্ণনীয় কিছুর দ্বারা।

 

 #আত্মপ্রজনন

একেবারে শুরুর দিকে।

ছিলো একটা বিন্দু।

আর সেটাই পরে স্বশোধিত হইলো।

হইলো ব্রহ্মাণ্ড।

 

. নাইন আপনাদের পরিতাপের সহিত জানাইতেছে

 

 #সুখ খোঁজার টোটকা

মনে করেন শেষ কোথায় তারে দেখছিলেন।

দেখেন এখনও সেখানে সে আছে কিনা।

যদি না থাকে তাইলে নিজেরে জিগান কেন সে চইলা গেল।

যদি থাকে তাইলে নিজেরে জিগান কেন আপনি সেখানে তার লগে থাকলেন না।

 

#সূত্রাবলী

কৌতুক = ট্র‍্যাজেডি + সময়।

কালো কৌতুক = ট্র‍্যাজেডি + সময় + ট্র্যাজেডি।

জার্মান কৌতুক = ট্র‍্যাজেডি + সময়–ট্র্যাজেডি।

জার্মান কালো কৌতুক = গ্রিক ট্র্যাজেডি।

 

#বহুনির্বাচনী প্রশ্ন

ক. সত্য।

খ. মিথ্যা।

গ. মিথ্যা হিসাবে প্রমাণিত হবার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত সত্য।

ঘ. মাত্রই সত্য প্রমাণিত হওয়া মিথ্যা।

 

#মিশ্র অভ্যর্থনা

ভালো খবরঃ

প্রযুক্তি আমাদের পরস্পরের ঘনিষ্ঠ করছে।

খারাপ খবরঃ

দয়া কইরা উপরের অংশটা দেখেন।

 

 

#পুকুর চুরি

কবিরা প্রেমিকের ভালবাসা চুরি করছে।

প্রেমিকেরা চুরি করছে কবির কবিতা।

আর দার্শনিকরা চুরি করছে কবিতা, ভালোবাসা আর দর্শন।

দার্শনিকের কাছ থিকাই।

 

#ভাঙা সুখ স্বপ্নরা

খারাপ খবরঃ

স্বপ্ন কখনো সত্যি হয় না।

আরও খারাপ খবরঃ

আপনার ক্ষেত্রে হইলেও হইতে পারে।

 

#অন্ত্যমিল ও কারণ

গদ্য+কাটকাটি = পদ্য

পদ্য+ কাটাকাটি = ভাল পদ্য।

পদ্য+ কাটাকাটি+ কাটাকাটি = হাইকু।

কাটাকাটি+ কাটাকাটি+ কাটাকাটি = ভাল হাইকু।

 

#গর্জন

আমার সময়ের সর্বশ্রেষ্ঠ চিন্তারাঃ

টুকরা টুকরা হয়া ধ্বংস হইছে।

আমার সময়ের সর্বশ্রেষ্ঠ বিচ্ছিন্ন চিন্তারাঃ

পূর্ণতা প্রাপ্তিতে ধ্বংস হইছে।

 

#পিয়ার রিভিউ

মার্কসঃ ঠিক।

ইতিহাসঃ ভুল।

ফুকোঃ নিয়মানুবর্তী।

ক্ষমতাঃ অদণ্ডিত।

[youtube id=”yjwo5gScbFY”]

The following two tabs change content below.

তানভীর হোসেন

জন্মঃ ২৫ জুলাই বগুড়া মিশন হাসপাতালে। জন্মের ২৫ বছর পর জানতে পারেন তার জন্ম সিজারিয়ান সেকশনে না বরং নরমাল ডেলিভারিতে হয়েছিল। পেশায় চিকিৎসক। দুই বাংলার বিভিন্ন মাধ্যমে (অনলাইন, অফলাইন- প্রিন্টেড) লেখালেখি করছেন। মূলত কবিতা লেখেন। প্রথম কবিতার বই "রাতের অপেরা"(জেব্রাক্রসিং প্রকাশনা) প্রকাশিত হয় ২০১৮ সালের বইমেলায়। বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে বেশ কিছু অনুবাদ প্রকাশিত হয়েছে। তবে বই হিসাবে অনুবাদের কাজ "নাইন" প্রথম। বইটা ২০১৯ এর বইমেলায় বিদ্যানন্দ প্রকাশনা থেকে আসবে।
  1. ক্রিয়েটিভ আর্ট
  2. ক্রিটিকস
  3. তত্ত্ব ও দর্শন
  4. ইন্টারভিউ
  5. তর্ক
  6. অন্যান্য